ঝাল খেলে আয়ু বাড়ে!
শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ০৩:২৮:১৮

প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট ২০১৫ ১০:৪৯:১৬ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

ঝাল খেলে আয়ু বাড়ে!

আয়ু বাড়ানোর জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে এটা সব্বাই জানেন। কিন্তু বাঙালীদের খুব প্রিয় একটি খাবার আছে যা আয়ু বাড়াতে খুবই সহায়ক! আর তা হলো মরিচ।

চীনে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষের ওপর গবেষণা করে দেখা যায়, যারা সপ্তাহে একবার বা দুইবার মরিচ খেয়ে থাকেন, অন্যদের তুলনায় তাদের মৃত্যুঝুঁকি কমে ১০ শতাংশ। যারা সপ্তাহে ৩ থেকে ৭ বার মরিচ খান তাদের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকি কমে ১৫ শতাংশ। শুধু তাই নয়। যারা বেশি ঝাল খাবার খেয়ে থাকেন তাদের ক্যান্সার এবং ইস্কেমিক ধরণের হৃদরোগ হবার সম্ভাবনাও থাকে কম।

সাত বছর ধরে ৪,৮৫,০০০ মানুষের খাদ্যভ্যাস এবং স্বাস্থ্যের ব্যাপারে গবেষণা চালানো হয়। তাদের রেড মিট, ঝাল খাবার, সবজি খাওয়া এবং অ্যালকোহল পানের ওপর লক্ষ্য রাখা হয়। এক্ষেত্রে যাদের হৃদরোগ, ক্যান্সার এবং ডায়াবেটিসের ইতিহাস ছিলো তাদের অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। দেখা যায়, ঝাল খাবার যারা নিয়মিত খেয়ে থাকেন তাদের ক্যান্সার, হৃদরোগ এবং ফুসফুসের সমস্যা থেকে মৃত্যু হবার ঝুঁকি কম থাকে। এর পাশাপাশি দেখা যায়, ঝাল খাওয়ার এই সুবিধা পুরুষের চাইতে নারীরা বেশি পেয়ে থাকেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই ঝালের উৎস ছিলো মরিচ এবং শুকনো মরিচের চাইতে টাটকা কাঁচামরিচ এ ক্ষেত্রে বেশি কার্যকরী বলে দেখা যায়। এ ছাড়াও যারা অ্যালকোহল পান করেন না তাদের ক্ষেত্রে মৃত্যুর ঝুঁকি কম ছিলো।

ঝাল খাওয়ার খাওয়ার ফলে শরীর কিভাবে এতো উপকৃত হয়? দেখা যায়, ঝাল খাবার প্রদাহ বা ইনফ্ল্যামেশন রোধ করে এবং শরীরে খারাপ ধরণের চর্বি জমা রোধ করে। এছাড়াও আমাদের পেটের বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়ার ওপর ঝাল প্রভাব ফেলে যেসব ব্যাকটেরিয়া ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং ওবেসিটির জন্য দায়ী। তবে এ ব্যাপারে একেবারে নির্ভুল তথ্যের জন্য আরও গবেষণা প্রয়োজন বলে স্বীকার করেন গবেষকেরা।

তবে অনেকে মনে করছেন, এই গবেষণার ফলাফল চীনের বাইরে অন্যরকম হতে পারে। এমনও হতে পারে চীনে এমনভাবে খাবারে ঝাল দেওয়া হয় যা আয়ু বাড়ানোর জন্য দায়ী। অথবা ঝাল খাবারের সাথে এমন কোনো পানীয় বা খাবার খাওয়া হয় যা এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এ কারণে অন্যান্য দেশের পটভূমিতেও এই গবেষণার ফলাফল যাচাই করে দেখা প্রয়োজন।

মূল: Eating spicy food is linked to something many people strive for by Laura Donovan, Business Insider
ফটো ক্রেডিট: www.womenshealthmag.co.uk

সংবাদটি পঠিতঃ ১৭৯ বার


ট্যাগ নিউজ