অক্সফোর্ডের কমনরুম থেকে মুছে গেল সুচির নাম
শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ০৩:৩৩:৫০

প্রকাশিত : শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭ ১০:১৭:৫১ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

অক্সফোর্ডের কমনরুম থেকে মুছে গেল সুচির নাম

ডেস্ক রিপোর্ট:

রাখাইনে রোহিঙ্গা মানবিক সংকটে বিতর্কিত ভূমিকার কারণে অক্সফোর্ড কলেজ তাদের জুনিয়র কমনরুম থেকে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সুচির নাম প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির সেন্ট হিউ’স কলেজের শিক্ষার্থীরা কমন রুম থেকে সুচির নাম মুছে ফেলার পক্ষে ভোট দিয়েছেন।

অক্সফোর্ডের এই আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কলেজে সুচি পড়াশোনা করেছিলেন। নাম মুছে ফেলার সিদ্ধান্তে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে দেশটির সেনাবাহিনীর অভিযানকে সমর্থন ও রক্ষায় সুচির নীরবতা ও সহযোগিতার সমালোচনা করা হয়েছে।

সেন্ট হিউ’র সিদ্ধান্তে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, রাখাইনে ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ, সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় সুচির সমালোচনা করতে না পারা অগ্রহণযোগ্য। এক সময় তিনি যে নীতি ও আদর্শের প্রতি অবস্থান নিয়েছিলেন এখন সুচি সেগুলোর বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন।

২০১২ সালে সুচি অক্সফোর্ড থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি পেয়েছিলেন। ওই বছরই তিনি নিজের ৬৭তম জন্মদিন কলেজে পালন করেন। এখানে ১৯৬৪-৬৭ সাল পর্যন্ত সুচি রাজনীতি, দর্শন ও অর্থনীতি বিষয়ে পড়াশোনা করেছিলেন।

এর আগে সেপ্টেম্বর মাসে সেন্ট হিউ’র পরিচালনা পর্ষদ কলেজের মূল ফটক থেকে সুচির প্রতিকৃতি নামিয়ে ফেলে। অক্টোবর মাসের শুরুতে অক্সফোর্ড সিটি কাউন্সিল সর্ব সম্মতভাবে সুচির ফ্রিডম অব দ্য সিটি অব অক্সফোর্ড পদক প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়।

এখন পর্যন্ত অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি সুচির সম্মানসূচক ডিগ্রি প্রত্যাহারের বিষয়টি বিবেচনা করছে না। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে নিপীড়নে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

সংবাদটি পঠিতঃ ১১৬ বার