সোমবার ২২ অক্টোবর ২০১৮, ০২:৪৪:১৫

প্রকাশিত : শুক্রবার, ১০ আগস্ট ২০১৮ ১২:২০:৪০ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon


আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসা খরচ দেবে সরকার: তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: 

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের সময় হামলায় আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আওয়ামী লীগ সমর্থিত বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর সমাপনী বক্তব্যে তিনি এই তথ্য জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, নির্যাতিত সাংবাদিকদের চিকিৎসার ব্যয়ভার সরকার বহন করবে। যারা হামলা চালিয়েছে তাদের গ্রেপ্তার করে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। আহত সাংবাদিকদের চিকিৎসা নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে বৃহস্পতিবারই চিঠি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

ইনু বলেন, ভবিষ্যতে যেন গণমাধ্যমকর্মীদের উপর এ ধরনের হামলা না হয়, তা নিশ্চিত করা হবে বলে সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতাদের আশ্বস্ত করেন। নিরাপদ সড়কের দাবিতে ঢাকার ধানমন্ডিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের সময় কর্তব্যরত সাংবাদিকদের ধরে ধরে পেটায় হেলমেট পরা একদল যুবক। গত রোববার সায়েন্স ল্যাবরেটরি মোড়, ধানমন্ডি ১ নম্বর ও ২ নম্বর সড়কে বেশ কয়েকজন আলোকচিত্র সাংবাদিক আহত হন। বিএফইউজে নেতারা তথ্যমন্ত্রীকে জানান, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় ২৪ জন সাংবাদিক হামলার শিকার হন, এদের মধ্যে ১২ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

গণমাধ্যমকর্মীদের উপর দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনতে সরকারকে ৭২ ঘণ্টার সময় বেঁধে দিয়েছেন সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতারা। আগামী কাল শনিবার সেই সময় শেষ হবে। 

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সাংবাদিকদের উপর যারা হামলা চালিয়েছে, তারা সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে চেয়েছে, এটা পরিকল্পিত চক্রান্ত। সাংবাদিকদের উপর যারা হামলা করেছে তারা দুর্বৃত্ত, তাদের গ্রেপ্তারে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আল্টিমেটাম অনুযায়ী শনিবারের মধ্যে দুর্বৃত্তদের গ্রেপ্তার করে সেই খবর সাংবাদিক নেতাদের দেওয়ার চেষ্টা করবেন জানিয়ে ইনু বলেন, আজই এনিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছি, উনি উদ্যোগও নিচ্ছেন।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় ফেইসবুকে প্রপাগান্ডা ছড়ানোর বিষয়টি তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, তিন-চার বছর আগের ছবিও ওই সময় ফেইসবুকে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। কোরবানির ঈদের আগেই মহার্ঘ্য ভাতা ঘোষণার লক্ষ্যে মন্ত্রণালয় কাজ করছে।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোল্লা জালাল ও মহাসচিব শাবান মাহমুদ এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরীর নেতৃত্বে সংগঠন দুটির নেতারা তথ্যমন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্যসচিব আবদুল মালেক ছাড়াও তথ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি পঠিতঃ ১০৫ বার


সর্বশেষ খবর