এক হাজার ওয়াই-ফাই জোন স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে: পলক
শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ১২:৩৫:১৭

প্রকাশিত : সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ ১১:১৯:৫৬ অপরাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

এক হাজার ওয়াই-ফাই জোন স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে: পলক

তরুণ প্রজন্মের জন্য বিভিন্ন পার্ক ও হাটবাজারসহ বিভিন্ন পাবলিক প্লেসে ১ হাজার ওয়াই-ফাই জোন স্থাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে উল্লেখ করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, তরুণ প্রজন্মের জন্য বিভিন্ন পার্ক ও হাটবাজারসহ বিভিন্ন পাবলিক প্লেসে ১ হাজার ওয়াই-ফাই জোন স্থাপন করার পরিকল্পনা রয়েছে।

সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সংসদে সরকারি দলের সদস্য ফিরোজা বেগমের (চিনু) এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা জানান। 

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, প্রতিটি উপজেলা ও ইউনিয়নসমূহের দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে ইতোমধ্যে দেশের প্রতিটি জেলায় ৫৫টি ও প্রতিটি উপজেলা পর্যায়ে ৩০টি সরকারি অফিস একই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত করা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ের সর্বমোট ১৮ হাজার ১৩০টি সরকারি দফতরে কানেকটিভিটি স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, উপজেলা পর্যায়ে ৮শ’টি সরকারি অফিসে ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেম স্থাপন করা হয়েছে। স্থাপিত এসব ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেমের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী দেশের বিভিন্ন উপজেলা পর্যায়ে দিকনির্দেশনা ও বক্তব্য দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় উপজেলা থেকে ২ হাজার ৬শ’টি ইউনিয়নে অপটিক্যাল ফাইবারের সংযোগ ও প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে পিওপি স্থাপন, লিজড লাইনের মাধ্যমে ১ হাজার পুলিশ অফিস সংযোগসহ পৃথক ভিপিএন স্থাপন করার লক্ষ্যে ‘ডেভেলপমেন্ট অব ন্যাশনাল আইসিটি ইনফ্রা-নেটওয়ার্ক ফর বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট পেইজ-৩ (ইনফু সরকার পেইজ-৩) প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। বর্তমানে এ প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান রয়েছে। প্রকল্পটির মেয়াদ জানুয়ারি ২০১৭ থেকে জুন ২০১৮ পর্যন্ত।

প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, এছাড়াও ‘ইস্টাবলিশিং ডিজিটাল কানেকটিভিটি (ইডিসি)’ প্রকল্পের আওতায় প্রায় ২ লাখ প্রান্তিক পর্যায়ে স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, কমিউনিটি ক্লিনিক, পোস্ট অফিস, কারিগরি শিক্ষা কেন্দ্রে অপটিক্যাল ফাইবার অথবা ক্ষেত্রবিশেষে সম্ভাব্য প্রযুক্তির মাধ্যমে কানেকটিভিটি প্রদান ও স্ট্যান্ডার্ড এলএএন স্থাপন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তৃণমূল পর্যায়ে আইসিটি শিক্ষা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০০৯ সাল থেকে ১ম পর্যায়ে বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ৩ হাজার ৫৪৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে ‘সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার ও ভাষা শিক্ষা প্রশিক্ষণ ল্যাব স্থাপন’ প্রকল্পের মাধ্যমে আরো ২০০১ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব’ স্থাপন করা হয়েছে। প্রতিটি ল্যাবে ইন্টারনেট সংযোগের লক্ষ্যে ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

সংবাদটি পঠিতঃ ১৫২ বার