তাসকিনের হ্যাট্টিকের ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত
শনিবার ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ০৩:৩৩:১৬

প্রকাশিত : বুধবার, ২৯ মার্চ ২০১৭ ১২:৫৮:৫৭ পূর্বাহ্ন Zoom In Zoom Out No icon

তাসকিনের হ্যাট্টিকের ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত

ক্রীড়া প্রতিবেদক: 

শ্রীলঙ্কার রণগিরি ডাম্বুলা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সফরকারী বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচের দ্বিতীয় অংশ অর্থাৎ বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের অংশ বৃষ্টির কারণে খেলা সম্ভব হয় নি। ফলে ম্যাচটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছে।  এই ম্যাচে এর চেয়েও বড় খবর হলো বাংলাদেশ পেস বোলার তাসকিন আহমেদের হ্যাট্টিক।  ইনিংসের শেষ ওভারে পর পর ৩ বলে (৩য়, ৪র্থ, ৫ম) গুনারত্নে, লাকমাল, নুয়ান প্রদীপকে ফিরিয়ে দিয়ে ক্রিকেট বিশ্বে ৪১তম এবং বাংলাদেশের ৫ম বোলার হিসেবে হ্যাটট্রিক করেছেন তাসকিন। 

ওয়ানডে ইতিহাসে ৪১তম হ্যাটট্রিকে তাসকিনের, যে রেকর্ডে বিশ্বে তিনি ৩৬তম (মালিঙ্গা ৩ বার, ওয়াসিম আকরাম, সাকলায়েন মুস্তাক, ভাস ২ বার করে) এবং বাংলাদেশ বোলারদের মধ্যে ৫ম। ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশের হ্যাটট্রিকের পথ প্রদর্শক পেস বোলার শাহাদত রাজিব ২০০৬ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সেই হ্যাটট্রিক দিয়ে শুরু। গত ১১ বছরে সংখ্যাটা বাড়তে বাড়তে ৫ এ এসেছে। শাহাদত রাজিব, বাঁ হাতি স্পিনার রাজ্জাক রাজ, পেস বোলার রুবেল হোসেন, বাঁ হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামের পর ৫ম বাংলাদেশী হিসেবে হ্যাটট্রিকের রেকর্ডটা গড়েছেন তাসকিন। 

টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় স্বাগতিকরা।  ৪৯ ওভার ৫ বল খেলে সব ক'টি উইকেট হারিয়ে তারা করেন ৩১১ রান। ফলে বাংলাদেশের টার্গেট দাঁড়ায় ৩১২ রানের। 

এর আগে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় লঙ্কানরা। ৩১১ রান সংগ্রহ করতে লঙ্কানদের সব ক'টি উইকেটের পতন হয়। 

এর মধ্যে প্রথমটি নেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।  তৃতীয় ওভারে মাশরাফির বলে মুশফিকুর রহিমের হাতে ধরা পরে আউট হল লঙ্কান ওপেনার দানুশকা গুনাথিলাকা।  তবে দ্বিতীয়টি হয় রান আউট। ৬৫ রান করে রান আউট হন উপুল থারাঙ্গা। তৃতীয় উইকেট পান মুস্তাফিজুর রহমান। ব্যক্তিগত ২৪ রানের মাথায় দিনেশ চান্ডিমালকে তিনি আউট করেন। 

এরপরে শতরান করা কুশল মেন্ডিসকে আউট করেন তাসকিন আহমেদ। দলীয় ২৭১ রানের মাথায় লঙ্কানদের পঞ্চম উইকেটের পতন হয়। উইকেটটি পান মেহেদী হাসান মিরাজ।  আউট করেন মিলিন্দা সিরিবর্ধনেকে। ব্যক্তিগত ৯ রান করে রান আউট হন থিসারা পেরেরা। দিলরুয়ান পেরেরাও রান আউট হন। সব মিলিয়ে ৩টি রান আউট হয় এই ম্যাচে। পরপর তিন বলে আসেলা গুনারত্নে, সুরঙ্গা লাকমল এবং নুয়ান প্রদীপকে সাজঘরে ফিরিয়ে হ্যাট্টিক করে তাসকিন।

এদিকে এই ম্যাচে ক্যারিয়ারের প্রথম ওয়ানডে শতরান করলেন কুশল মেন্ডিস। সবচেয়ে কম বয়সী চতুর্থ শ্রীলঙ্কান খেলোয়ার হিসেবে তিনি এই সেঞ্চুরি করেন। ব্যক্তিগত ১০২ রান করে তিনি আউট হন। এছাড়া ৬৫ রান করেন থিসারা পেরেরা। 

বাংলাদেশের পক্ষে মাশরাফি, মিরাজ এবং মুস্তাফিজ ১টি করে উইকেট পান।  তাসকিন হ্যাট্টিকসহ ৪ উইকেট পান।বিদেশের মাটিতে ওয়ানডে ক্রিকেটে এটাই তার সেরা বোলিং।  

সংবাদটি পঠিতঃ ১৮৯ বার