আর্কাইভ | ঢাকা, সোমবার, ০২ অক্টোবর ২০২৩, ১৭ আশ্বিন ১৪৩০, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫ ১২:৫২:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজঃ ‘আন্দোলনের বারোটা বাজিয়ে বিএনর পিশোকের মিছিল’ * কোরআন অবমাননা ঠেকাতে ডেনমার্কে নতুন আইন * রোহিঙ্গাদের প্রশ্ন, ন্যায়বিচারের পথ এত কঠিন কেন * গ্রেফতারের পর যে শর্তে ছাড়া পেলেন ট্রাম্প * ‘প্রিগোজিনের মৃত্যু হয়েছে রাশিয়ার বিশ্বাসঘাতকদের কারণে ’ * জেলেনস্কির স্বীকারোক্তি: রুশবিরোধী পাল্টা অভিযান খুবই কঠিন কাজ * ব্রিকসে যোগ দিতে ছয় দেশকে আমন্ত্রণ, ডাক পায়নি বাংলাদেশ * বাংলাদেশে বাইরের হস্তক্ষেপ নিয়ে যা বললেন শি জিনপিং * আন্তর্জাতিক আদালতই কি ইমরান খানের শেষ ভরসা?  * বিএসএফের গুলিতে নিহতের লাশ এলো ৭৮ দিন পর * দেশি পেঁয়াজ শতকের ঘরে  * 'জাতীয় পার্টিতে রওশন নাটক'  * এআই কি মানুষের কাজ কেড়ে নেবে? * বিএনপির মধ্যে অস্থিরতা লক্ষ্য করছি: তথ্যমন্ত্রী * রাশিয়ার সুপারসনিক বোমারু বিমান ধ্বংস করলো ইউক্রেন * পশ্চিমতীরে দুই ইসরাইলি  নিহত * ‘আমেরিকানরা ভালোভাবেই চেন’ * সৌদি সীমান্তে শত শত মানুষকে গুলি করে হত্যা!  * ভারতে প্রবীণ মুসলিম দম্পতিকে পিটিয়ে মারল হিন্দু পড়শীরা * দুই স্ত্রী যেভাবে ভাগাভাগি' করলো স্বামীকে 
Photo
স্টাফ রিপোর্টার, নব আলো
ঢাকা, প্রকাশিতঃ
১৫ এপ্রিল ২০১৯
০৯:৩৯:০৬ পূর্বাহ্ন
                       

সেই ওসির বিরুদ্ধে মামলা: ৩০ এপ্রিল প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ 


নব আলো : নুসরাতকে জেরা করা ফেনীর সোনাগাজী মডেল থানার ওসি (প্রত্যাহার হওয়া) মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইব্যুনালে ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে’ করা মামলাটি গ্রহণ করেছেন আদালত। সোমবার সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সাইদুল হক সুমন এ মামলাটি করেন। 

আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে আগামী ৩০ এপ্রিল মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

দুপুর ১টার দিকে বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালতে আবেদন করেন ব্যারিস্টার সুমন। আদালত তার জবানবন্দি গ্রহণ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮-এর ২৬, ২৯ ও ৩১ ধারায় করা অভিযোগটি পিটিশন মামলা হিসেবে গ্রহণ করেন।

ব্যারিস্টার সাইদুল হক সুমন বলেন, ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৬ ধারাসহ অন্যান্য ধারায় অভিযোগ করা হয়েছে। যৌন হয়রানির অভিযোগ করতে থানায় যাওয়ার পর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির জবানবন্দি রেকর্ডের সময় ভিডিও করা এবং পরবর্তীতে তা সোশ্যাল মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়ার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ করা হয়েছে।

এর আগে যৌন হয়রানির অভিযোগ করতে যাওয়ার পর সোনাগাজী থানার তৎকালীন ওসির কক্ষে আরেক দফা হয়রানির শিকার হতে হয়েছিল নুসরাতকে। ওসি নিয়ম না মেনে জেরা করতে করতেই নুসরাতের বক্তব্য ভিডিও করেন। মৌখিক অভিযোগ নেয়ার সময় দুজন পুরুষের কণ্ঠ শোনা গেলেও সেখানে নুসরাত ছাড়া অন্য কোনো নারী বা তার আইনজীবী ছিলেন না।

আইনজীবীরা বলছেন, যৌন হয়রানির অভিযোগ করার সময় ভিডিও ধারণের ঘটনায় ওসির বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা করার সুযোগ রয়েছে।

ওসির এ ধরনের আচরণের বিষয়ে পুলিশ কর্তৃপক্ষও বলছেন, আইন না মেনে কারোর ভিডিও করলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া যাবে।

সোনাগাজীর ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত আক্তার রাফিকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগ রয়েছে ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদ্দৌলার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় নুসরাত থানায় অভিযোগ করলে অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর থেকেই মাদ্রাসার অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা তুলে না নেওয়ায় নুসরাতকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়।
 

সংবাদটি পঠিতঃ ১১৩ বার


ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ফোরকান হোসেন
উপদেষ্টা সম্পাদক: এডভোকেট আনিসুর রহমান

৪৯/১/এ, পুরানা পল্টন লেন, চতুর্থ তলা, ঢাকা-১০০০।
মোবাইল: ০১৫৫২৩৯৯২২৯
ইমেইল: ekhonpress@gmail.com

Design & Developed By IFTI IT