বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০১৭ ০৫:০৪:০৩ অপরাহ্ন

আজ মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৪ তম জন্মদিন

আজ ২৫ জানুয়ারি। বাংলা সাহিত্যের উজ্জ্বলতম নক্ষত্র মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের ১৯৪ তম জন্মদিন। ১৮২৪ সালের এই দিনে তিনি যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলার সাগরদাঁড়ি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

বিস্ময়কর প্রতিভার অধিকারী মাইকেল মধুসূদন দত্তের জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে কবির জন্মভিটা সাগরদাঁড়িতে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা-২০১৭ এর আয়োজনসহ বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

১৯৭৩ সাল থেকেই এই মধুমেলার আয়োজন করা হয়ে থাকে । এবার সপ্তাহব্যাপি এই মেলা শুরু হয়েছে গত ২১ জানুয়ারি থেকে । জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক এ দিন এ মেলার উদ্ভোধন করেন । আগামী ২৭ জানুয়ারি মেলা শেষ হবে ।

মহাকবির জন্মবার্ষিকী এবং মধুমেলা উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী প্রদান করেছেন।

রাষ্ট্রপতি তাঁর বাণীতে বলেছেন, জন্মভূমির প্রতি মাইকেল মধুসূদন দত্তের গভীর অনুরাগ আগামী প্রজন্মের কাছে দেশপ্রেমের চিরন্তন নিদর্শন হিসেবে চির-জাগরুক থাকবে। মাইকেল মধুসূদন দত্ত বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন, উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, তাঁর (মধুসূদনের) হাতে বাংলা সাহিত্য পেয়েছে নবরূপ, হয়েছে সমৃদ্ধ ও ঐশ্বর্যমন্ডিত। তিনি একাধারে বাংলা সাহিত্যে প্রথম মহাকাব্যের রচয়িতা, অমিত্রাক্ষর ছন্দের প্রবর্তক, সনেট রচয়িতা ও আধুনিক শিল্পকলাসম্মত নাট্যকার।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে বলেন, বাংলা সাহিত্যের প্রবাদ পুরুষ মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের অনন্য সাহিত্যকীর্তি বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের অমূল্য সম্পদ।

মধুসূদন দত্ত বাংলা ভাষায় মহাকাব্য রচনা এবং বাংলা কবিতায় অমিত্রাক্ষর ছন্দ প্রবর্তনের পথিকৃৎ উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলা কাব্যের গতানুগতিক রীতি-প্রকরণ ভেঙে নতুন ছন্দ যোজনায় তিনি আমাদেরকে বিচিত্র কাব্য-সম্ভার উপহার দিয়েছেন।

নাটক, প্রহসন, মহাকাব্য, পত্রকাব্য, সনেট, ট্রাজেডিসহ সাহিত্যের বিভিন্ন শাখায় তাঁর অমর সৃষ্টি বাংলা ভাষা ও সাহিত্যকে উন্নত মর্যাদার আসনে প্রতিষ্ঠিত করেছে । ১৮৭৩ সালের ২৯ জুন মহাকবি মধুসূদন দত্ত ইহলোক ত্যাগ করেন।

২৭০/১(৩য় তলা) ধানমন্ডি-১৫ (পুরাতন)৮/এ(নুতন),ধানমন্ডি,ঢাকা-১২০৯ ইমেইলঃ muktobani@gmail.com ,Skype: muktobani.com টেকনিকালঃ ০১৭৯৪১০০০০৯, নিউজ রুমঃ ০১৫৫২৬০১৮০৫ Developed by : PHP Boss